নোবিপ্রবির রঙে রাঙা শেষ বেলা

ওহী আলম, নোবিপ্রবি থেকে

চারদিকে অনেক রঙ। সেসব ছড়ানো রঙে টুকরো স্মৃতি ফ্রেম বন্দী হয়ে আছে। প্রথম ক্যাম্পাসে আসা, গুটি গুটি পায়ে আমদের পদচারনা, ক্লাসরুম, লাইব্রেরী, নীলদীঘি আর ১০১ একর। সেই প্রথম দিন থেকে প্রহর গুনতে থাকা কবে শেষ হবে ক্যাম্পাস জীবন আজ একদম শেষের পথে। অথচ আজ কত বার মনে হয়েছে,এ অপেক্ষার শেষ না হলেই ভাল হতো! আজ কোন ক্লাস নেই, নেই ব্যস্ততাও। আজ এদের অবসর দিয়ে জড়ো হয়েছি স্মৃতি জমাতে। শেষ বেলাকে রঙে রাঙাতে। সম্পর্কগুলোতে আবির মাখাতে।

সকাল হতেই আমরা জড়ো হয়েছিলাম ডিপার্টমেন্টে। শ্রদ্ধেয় শিক্ষকবৃন্দদের নিয়ে কেট কেটেছি। এরই মধ্যে কয়েকজন টিশার্ট বিলি করেছে। সেসব সাদা টিশার্ট রঙিন ক্যানভাসে পরিণত হয়েছিল খনিকের ভিতরই। মন উজাড় করে সবাই লিখেছে, আবির মাখছে। গানের তালে তাল মেলাচ্ছে। বিচ্ছেদের কষ্টে কারো চোখে জল এসে গেলেও টুপ করে মুছে নিয়েছে। আজ যে আনন্দের দিন।হারাবার দিন। বিদায় জানানোর দিন। সে বিদায়কেই আমরা আনন্দে পরিপূর্ন করে দিতে চেয়েছি। লাল বাস থেকে গোলচত্বর মুঠোফোন আর ক্যামেরায় মুহূর্তদের বন্দী করেছি অবাধ স্বাধীনতায়।

সবুজ মাঠে শুয়ে বন্ধুত্বের গান গেয়েছি। আবির মেখে ভূত হয়েছি। যা হারিয়েছে তা ফেরার নয়। রোজকার কর্মব্যস্ততায় ছিটকে যাবো কে কোথায়। শেষ শেষ করে যে হাহাকারে রোজ ব্যস্ত হতাম সে হাহাকার আজ চেপে বসেছে ব্যাপক। বিদায় কালে ফেলে যাচ্ছি আমাদের অনুগল্প গুলো, আমাদের অভিমান, সাফল্য অথবা ব্যর্থতা আর ভালবাসাদের। ভীষণ মিস করতে হবে সবাকে সবার।

10 Shares